ক্রিকেটে ‘ডাক’ শব্দটির রহস্য জানেন?

ক্রিকেটে ‘ডাক’ শব্দটা আমরা বহুবার শুনেছি। এবং জানিও। যখন কোনও ব্যাটসম্যান শূন্য রানে আউট হয়ে যান, তখন তাঁকে ‘ডাক’ বলা হয়ে থাকে। কিন্তু এই শব্দটার উত্পত্তি কী ভাবে হয়েছে? আর কত প্রকার ‘ডাক’ ক্রিকেটের সঙ্গে জড়িত একটু জেনে নেওয়া যাক।

১৮৮৬ সালের কথা। ইংল্যান্ডে তখন খেলা বলতে ক্রিকেটই সবচেয়ে জনপ্রিয় ছিল। এ রকমই একটি ক্রিকেট ম্যাচ চলছিল। সেই ম্যাচে প্রিন্স অব ওয়েলস ব্যাট করতে নেনে শূন্য রানেই আউট হয়ে যান। পর দিন স্থানীয় একটি দৈনিকে শিরোনাম বেরোয় ‘প্রিন্স রিটায়ার্ড টু দ্য রয়্যাল প্যাভিলিয়ন অন আ ডাক’স এগ’। এর পর থেকেই ক্রিকেটের ইতিহাসে ‘ডাক’ শব্দের প্রচলন। আরও একটা কারণের জন্যও এই শব্দটি বলা হয়। তা হল কেউ যখন শূন্য রানে (০) আউট হন, শূন্যটাকে দেখতে অনেকটা ডিমের মতো দেখতে লাগে বলেও এই শব্দটা ব্যবহার করা হয়।

এ বার জেনে নেওয়া যাক কত রকমের ‘ডাক’ হয়।

• গোল্ডেন ডাক: যখন কোনও ব্যাটসম্যান প্রথম বলেই আউট হয়ে যান, তখন গোল্ডেন ডাক শব্দটি ব্যবহার করা হয়।

• সিলভার ডাক: কোনও ব্যাটসম্যান যখন দ্বিতীয় বলে শূন্য রানে আউট হন।

• ব্রোঞ্জ ডাক: কোনও ব্যাটসম্যান তৃতীয় বলে শূন্য রানে আউট হলে এই শব্দটি ব্যবহার করা হয়।

• ডায়মণ্ড ডাক: কোনও ব্যাটসম্যান নন-স্ট্রাইকার এন্ডে থেকে একটা বল না খেলেও রান আউট হয়ে যান তা হলে তাকে ডায়মণ্ড ডাক বলা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *