জিনস পড়ছেন ? জানেন কি – লো ওয়েস্ট জিনস মারাত্মক ক্ষতি করছে আপনার

লো-ওয়েস্ট জিনস্ পরা ইদানীং একটি ফ্যাশন। রাস্তাঘাটে এমন বহু মেয়েকে দেখা যায়। কিন্তু এই জিনস্ থেকে মারাত্মক ক্ষতি হতে পারে জানেন কি? লো-ওয়েস্ট জিনস্ এখন ফ্যাশনে ইন-থিং। শুধু অল্পবয়সীরা নয়, মাঝবয়সী মহিলারাও পরেন লো-ওয়েস্ট। আর পরবেন না-ই বা কেন? পোশাক তো পরার জন্যেই! কিন্তু এই জিনস্ থেকে কী কী মারাত্মক বিপদ হতে পারে তা জানলে আর হয়তো মহিলাদের পরতে ইচ্ছে করবে না। কী কী? দেখে নিন—

অত্যন্ত টাইট, স্কিনি লো-ওয়েস্ট জিনস্ পরলে তা স্নায়ু বিকল করে দিতে পারে। গত বছর এমন জিনস্ পরার চোটে এক অস্ট্রেলীয় মহিলার পা অবশ হয়ে যায়। প্রায় অজ্ঞান অবস্থায় তাঁকে নিয়ে যাওয়া হয় হাসপাতালে। কাঁচি দিয়ে সেখানে জিনস্ কেটে ফেলতে হয়।

দীর্ঘক্ষণ পরে থাকলে যৌনাঙ্গের উপর চাপ সৃষ্টি করে। বিশেষ করে যদি বসার জন্য এমন কোনও চেয়ার না থাকে যার পিঠটি ঢাকা তবে তো মহাবিপদ। বসলে লো-ওয়েস্ট জিনস্ আরও একটু নেমে যায় ফলে শরীরের গোপন অংশ লোকের নজরে পড়ে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে। তাই পিঠ ফাঁকা বা কোমরের কাছটি ফাঁকা এমন চেয়ারে বসতে গেলে মেয়েদের একটি বিশেষ ভঙ্গিতে বসতে হয় এই জিনস্ পরে। ভাবুন তো, ক্লাসরুমে বা অফিসে এইভাবে চার-পাঁচ ঘণ্টা বসে থাকলে যৌনাঙ্গে কতটা চাপ পড়তে পারে। বাধ্য হয়ে বসতেই হয় কিন্তু তার থেকে স্নায়ুর সমস্যা হওয়া আশ্চর্য কিছু না। থেকে স্কিন র‌্যাশ, সবই হতে পারে।

তাছাড়া লো-ওয়েস্ট জিনস্ মানেই কোমরের নীচের গোপন অংশের বেশ খানিকটা ‘এক্সপোজ’ হয়ে যাওয়া। ট্রাম-বাসের সিট, অফিসের চেয়ার ইত্যাদি থেকে সহজেই ধুলোবালি ও নানা ধরনের জীবাণু খুব সহজেই শরীরে প্রবেশ করতে পারে।

এছাড়াও আরও বড় ক্ষতি হতে পারে। সেটা যাঁরা পরছেন তাঁদের চেয়ে যাঁরা দেখছেন তাঁদেরই বেশি। বাইকের পিছনে শর্ট টপ এবং লো-ওয়েস্ট জিনস্ পরিহিতা কেউ যদি বসেন তবে পিছনের গাড়ি বা বাইকের চালকরা হঠাৎ করে তা দেখে বিষম খেতে পারেন, মারাত্মক অ্যাক্সিডেন্টও ঘটতে পারে। তাই অন্তত জনগণের স্বার্থেই

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *