মরার অভিনয় করে ধর্ষকের হাত থেকে বাঁচল ছোট্ট মেয়ে

ঘুমের মধ্যেই অপহরণ করে ধর্ষণ করা হয়েছিল তাকে। হয়তো বেঁচেও ফিরতে হত না, যদি না বুদ্ধিবলে মারা যাওয়ার অভিনয় করত ৮ বছরের ছোট্ট মেয়েটি। মারা যাওয়ার অছিলায় ধর্ষণকারীর হাত থেকে পালিয়ে বাঁচল সে। দিন কয়েক আগে দিল্লির ঘটনা। গ্রেফতার হয়েছে অভিযুক্ত।

তবে ট্রমা এতটাই ছিল যে বাড়ি ফিরেও ঘটনাটি কাউকে জানায়নি সে। পরে রক্তাক্ত বিছানা আর পেটে অসহ্য যন্ত্রণা হতে দেখে বাবা-মা তাকে জিজ্ঞাসা করে জানতে পারেন পুরো ঘটনাটি।

দিন কয়েক আগে ভরদুপুরে বাড়ির বাইরে একটি ছোট বিছানায় ঘুমোচ্ছিল সে। ঘুম যখন ভাঙে তখন নিজেকে অচেনা জায়গায়, অচেনা মুখের মাঝে আবিষ্কার করে। এর পরই তার উপর শুরু হয় পাশবিক নির্যাতন। মারধর এবং ধর্ষণ করা হয় তাকে। ছোট্ট সেই শরীরের সমস্ত বল প্রয়োগ করেও কোনও লাভ হয়নি। উপায় না দেখে অবশেষে মারা যাওয়ার অভিনয় করতে শুরু করে। ধর্ষক কয়েক বার তাকে নাড়াচাড়াও করে। কিন্তু তাতেও কোনও সাড়া পাওয়া যায়নি মেয়েটির। ধর্ষক তার থেকে একটু দূরে যেতেই প্রাণপন ছুট লাগায় সে। ধাওয়া করে ধর্ষকও। তবে পাথরে ধাক্কা খেয়ে পড়ে যাওয়ায় আর নাগালে পায়নি তাকে। মেয়েটি এখন দিল্লির একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। তার বাবা জানিয়েছেন, অনেকটাই সুস্থ আছে সে। এলাকার সিসিটিভি ফুটেজ দেখে গ্রেফতার করা গিয়েছে অভিযুক্তকে। সে পাশের পাড়ার বাসিন্দা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *